1. dainikajkermeghna@gmail.com : Saiful :
  2. alauddinislam015@gmail.com : মো: আলাউদ্দিন : মো: আলাউদ্দিন
  3. mahdihasan990@gmail.com : Mahdi Hasan : Mahdi Hasan
  4. najmulhossin2050@gmail.com : Najmul Hossain : Najmul Hossain
  5. sz.rony766@gmail.com : শহীদুজ্জামান রনী। : Sz rony
বরুড়ার তাসনিম লোপা ঘরে বসে আয় ২৫ হাজার টাকা - দৈনিক আজকের মেঘনা
বুধবার, ১৮ মে ২০২২, ০৩:৫২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
সংবাদিক ইমরুলের নামে পরিকল্পিত অপপ্রচার সংবাদিক মহলের নিন্দা। হারিয়ে যাওয়া ৯ ভরি ১৪ আনা স্বর্ণালংকার মেঘনা থানা পুলিশ কর্তৃক উদ্ধার। রাজাপুরে অসহায় সুবিধা বঞ্চিতদের মাঝে ঈদবস্ত্র বিতরন করেছেন ইঞ্জিনিয়ার আবুল কাসেম সীমান্ত মেঘনায় ঈদ উপহার বিতরণ করেন খন্দকার বাতেন। মেঘনায় ঈদ উপহার ঘর পেলেন ২২ গৃহহীন পরিবার। মেঘনায় তৌফিক ও সোলমান এর উপর সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় মানববন্ধন করে এলাকাবাসী। মেঘনায় অভিবাসী কর্মী উন্নয়ন সংস্থার অভিযোগ ব্যবস্থাপনা কমিটি গঠন। মেঘনায় রোবটিক্স বিষয়ক ওরিয়েন্টেশন কর্মশালা অনুষ্ঠিত নলছিটিতে ভিজিডি কার্যক্রমের অগ্রগতি পর্যালেচনা সভা অনুষ্ঠিত মেঘনায় নারী দিবসে র‍্যালী ও আলোচনা সভা।

বরুড়ার তাসনিম লোপা ঘরে বসে আয় ২৫ হাজার টাকা

স্টাফ রিপোর্টার লিটন সরকার বাদল
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ২৪ আগস্ট, ২০২০
  • ১৪৮ বার পঠিত

 

তাসনিম লোপা পড়াশোনা করেছেন চট্টগ্রাম কলেজে উদ্ভিদবিজ্ঞানে স্নাতকোত্তরে। গত বছরের শেষ দিকে অনলাইনে টাঙ্গাইলের মণিপুরি তাঁতিদের জুম শাড়ি দিয়ে ব্যবসা শুরু করেন। বেশ সাড়া পাওয়া যায়। এরপর শুরু করলেন সুন্দরবন থেকে সংগৃহীত খাঁটি মধু বিক্রি। তাসনিম আঁকতেও পারেন। তাই নতুন যুক্ত হয়েছে হাতের তৈরি গয়না। সব মিলে মাসিক আয় ২৫ হাজার টাকা।

তাসনিম লোপা বরুড়া উপজেলা পয়ালগাছা ইউনিয়নের গন্ডামারা গ্রামের আরিফুল ইসলামের সহধর্মিণী। স্বামী ও এক মেয়ে নিয়ে এখন থাকেন সাভারে। চাকরি করার ইচ্ছা থাকলেও তা হয়নি বিভিন্ন কারণে। বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের চাকরিজীবী স্বামীর কাছ থেকেও টাকা নিতে ইচ্ছে করে না। তাই শুরু করেন অনলাইন ব্যবসা।

তাসনিম বললেন, ‘পণ্যের অর্ডার অনলাইনে (ফেসবুক পেজ) এবং পরিচিত আশপাশের লোকজনের কাছ থেকে পাই। তার নিজস্ব একটি ফেসবুক পেজ আছে। এই পেজ থেকে তার বিভিন্ন পণ্যে এড দিয়ে থাকেন। দূরের পণ্যের অর্ডার কুরিয়ার সার্ভিসের মাধ্যমে পৌঁছাই। আয় বাড়ছে।

তাসনিম সফল উদ্যোক্তা হতে চান। বড় উদ্যোক্তা হওয়ার জন্য এখন কষ্ট করছেন বলে জানালেন। বর্তমানে শাড়ি, থ্রিপিস,শার্ট, টিশার্ট, কাঠের গহনা ও খাঁটি মধু নিয়ে কাজ করছেন।

উদ্যোক্তা হতে গিয়ে পরিবার থেকে বাঁধা কিংবা সহযোগিতা পেয়েছে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমি কোন প্রতিবন্ধকতার স্বীকার হয়নি। উল্টা সবার কাছ থেকে সাপোর্ট পাচ্ছি। সব থেকে বেশি সাপোর্ট করতেছে আমার হাজব্যান্ড। যিনি না থাকলে হয়তো আমার উদ্যোগ পরিপূর্ণতা পেত না।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..
কপিরাইটঃ ২০১৯ দৈনিক আজকের মেঘনা এর সকল স্বত্ব সংরক্ষিত।
Theme Customized BY LatestNews