আসন্ন দাউদকান্দি পৌর নির্বাচনে মোহামদ আবু মুছা একজন হেভিওয়েট জনপ্রিয় প্রার্থী।

কুমিল্লা চট্টগ্রাম বিভাগ দাউদকান্দি উপজেলা

একসময়কার রাজপথ কাঁপানো ছাত্র নেতা।নীতি আদর্শে অটল একজন নিপাট ও পরিপাটি মানুষ মো. আবু মুছা আসন্ন দাউদকান্দি পৌরসভা নির্বাচনে একজন হেভিওয়েট জনপ্রিয় মেয়র প্রার্থী।

তিনি প্রতিশ্রুতিতে বিশ্বাসী নয় কাজে বিশ্বাসী। তার উদারতা ও মানবতাবাদী হৃদয়ে সবসময় মানুষের উপকারের চিন্তা থাকে। তিনি আপামর মানুষের ভালোবাসায় অভিষিক্ত একজন মানুষ। তিনি ছোট-বড় সকলের সাথে তৈরী করেছেন সৌহার্দ্য ও ভাতৃত্ববোধ সম্পর্ক।

এবার পৌরসভা নির্বাচনে তিনি প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার জন্য মনস্থির করছেন। তার রয়েছে নির্দিষ্ট কিছু রিজার্ভ ভোট এ ভোট তার জন্য বিজয়ের বন্ধরে পৌঁছতে সহজ রাস্তা তৈরী করতে পারে। তার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীরা তাকে হেয় বা দূর্বল প্রার্থী ভাবা মোটেও ঠিক হবে না। এবারের নির্বাচনকে মো. আবু মুছা একটি চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিয়েছেন। তিনি কথা কম বলেন, সময়ের কাজ সময়ে করেন।
তার আদর্শগত নীতি তাকে অনেক দূর এগিয়ে নিবে একথা নিশ্চিত বলা যায়।তার রয়েছে একঝাঁক বিশাল কর্মী বাহিনী।জনপ্রিয়তার পারদও তুঙ্গে। সার্বিক হিসেবে এবার যে ক’জন হেভিওয়েট মেয়র প্রার্থী আছেন তার মধ্য তিনি অন্যতম। তিনি যদিও মার্কিনমুলুকে জীবনজীবিকার তাকিদে থাকেন।সময় পেলেই ছুটে আসেন দেশের টানে, মানুষের মায়ার নেশায়। তার পজিটিভ বহুমাত্রিক গুণের মধ্য একটি বড় গুণ হলো তিনি মহৎ হৃদয়ের অধিকারী। অসহায় মানুষের বিপদকালে ঝাপিয়ে পরে মানুষকে উপকার করাই তার স্বভাবজাত বৈশিষ্ট্য।

এ প্রতিবেদকর সাথে মেয়র প্রার্থী মো. মুছার কথা হলে তিনি জানান,” আমি প্রতিশ্রুতিতে বিশ্বাসী নয় কাজে বিশ্বাসী। পৌরবাসি যদি আমাকে যোগ্য মনে করে তাহলে তারা আমাকে মেয়র নির্বাচিত করে আমি আমার সাধ্যর সব কিছু উজাড় করে একজন সেবক হিসেবে সর্বোচ্চ সেবা বিলিয়ে যাবো। তিনি আরো বলেন, এবারের নির্বাচনে দাউদকান্দি পৌরবাসির আগামীর পাঁচ বছরের ভাগ্য নির্দারনের নির্বাচন তাই আমি বলবো প্রিয় পৌরবাসি আপনার মূল্যবান ভোট দেয়ার আগে দয়া করে ভাববেন যে, আপনি যাকে ভোট দিচ্ছেন সে আপনার ভোট পাওয়ার যোগ্য কী-না? কিংবা আপনার আগামী দিনে সে আপনার পাশে থাকবে কী-না?

পৌরবাসির উদ্দেশ্যে তিনি আরো বলেন, আপনারা কালো টাকার প্রলোভনে অযোগ্য প্রার্থীকে আপনারা মেয়র নির্বাচন করবেন না।দয়া করে যোগ্য ও জনবান্ধব প্রার্থীকে আপনার মূল্যবান ভোট দিবেন।”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *